Home কক্সবাজার হিউম্যান রিলিফ ফাউন্ডেশনের এর উদ্যোগ রোহিঙ্গা ও স্থানিয়রা সুফল পাচ্ছে।

হিউম্যান রিলিফ ফাউন্ডেশনের এর উদ্যোগ রোহিঙ্গা ও স্থানিয়রা সুফল পাচ্ছে।

27
0

প্রেসবিজ্ঞপ্তিঃ

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির আশ্রয় ও অন্যান্য সহোযোগীতার জন্য দেশি বিদেশী দাতা ও এনজিও সংস্থাগুলো বাংলাদেশ সরকারের পাশে দাড়িয়েছে। এতে করে ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে নিরাপদ আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ বিশ্বব্যাপী মডেল হয়ে উঠেছে । রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি দাতা ও সাহায্য সংস্থা গুলো কক্সবাজারের স্থানীয় মানুষদের সহায়তার করে যাচ্ছে। এইসব কর্মকান্ড প্রশংসার দাবী রাখে বলে মন্তব্য করেছেন কক্সবাজার জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ নাসিম আহমেদ ।

সকালে কক্সবাজারের এক অভিযাত হোটেলে “হিউম্যান রিলিফ ফাউন্ডেশন” কর্তৃক আয়োজিত “শেল্টার এ্যান্ড ওয়াশ এ্যাসিসটেন্স ফর রোহিঙ্গা এ্যান্ড হোষ্ট পপুলেশন ইন বাংলাদেশ” প্রকল্প উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন ।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত শরনারথী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার জনাব মোহাম্মদ শামছুদ্দৌজা, তিনি বলেন হিউম্যান রিলিফ ফাউন্ডেশন (এইচ আর এফ) তাদের পার্টনারদের সহায়তায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সাম্প্রতিক অগ্নিকান্ডের পর দ্রুত শেল্টার নির্মাণের মাধ্যমে সহায়তা প্রদান করেছে। এইচ আর এফ এর সহায়তা ও দ্রুত সাড়া প্রদানের বিষয়ে আরআরআরসি অবগত রয়েছেন। আগামী দিনে তাদের এই ধরনের উদ্যোগ বাস্তবায়নে সকল সহায়তা প্রদান করা হবে ।

হিউম্যান রিলিফ ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি হেড জনাব ডক্টর ওবায়দুর রহমানের সভাপতিত্ব এ অনুষ্ঠানের প্রকল্পের কার্যক্রম তুলে ধরেন হিউম্যান রিলিফ ফাউন্ডেশনের কক্সবাজার হেড অব প্রোগ্রাম জনাব মোহাম্মদ ইলিয়াস।

এইচ আর এফ তার পার্টনারদের সহযোগীতায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৪১০০ টি শেল্টার নির্মাণ করতে যাচ্ছে যার মধ্যে ইতোমধ্যেই ১০২৩ টি নতুন শেল্টার নির্মাণ করা হয়েছে । সেই সাথে ক্যাম্পে ক্যাম্পে ১০২৫ টি শাওয়ার ব্লক , ২৫৬ টি টয়লেট ব্লক , ৪১০০ টি সোলার এবং ৪১০০ টি অগ্নি নির্বাপক প্রদান করা হবে। এক সাথে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির ফলে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য বাংলাদেশ সরকারের অনুমোদিত কক্সবাজারের বিভিন্ন উপজেলায় ৩৭৫ টি ঘর নির্মাণ করতে যাচ্ছে। এছাড়াও হিউম্যান রিলিফ ফান্ডেশন আগামীতে তাদের পার্টনারদের মাধ্যমে আগামীতে রোহিঙ্গা ও কক্সবাজারের স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য শিক্ষা , স্বাস্থ্য,জীবিকা, বৃক্ষরোপণ ও এলপিজি গ্যাস প্রদানের মতো কার্যক্রম পরিচালনা করবে।

এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার (এনজিও সেল) জনাব মোঃ জোবায়ের হাবিব , এইচ আরএফ পারটনার ইপসার আঞ্চলিক পরিচালক জনাব খালেদা বেগম , গ্লোবাল উন্নয়ন সংস্থার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, মোঃ নজরুল ইসলাম এবং একতা মহিলা উন্নয়ন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক জনাব আনোয়ারা বেগম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here