Home কক্সবাজার প্রধান মন্ত্রীর হাত কে শক্তি শালী করতে রাজনিতি করি- বাহাদুর।

প্রধান মন্ত্রীর হাত কে শক্তি শালী করতে রাজনিতি করি- বাহাদুর।

26
0

নিজস্ব প্রতিবেদক:
১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস ও ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে উখিয়া উপজেলা যুবলীগের উদ্দোগ্যে বৃক্ষরোপন, দোয়া মাহাফিল, আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়।

২১ আগষ্ট শনিবার বিকাল ৪ টার সময় কোটবাজার দক্ষিন ষ্টেশনে এই সভা অনুষ্টিত হয়।

সোহেল আহাম্মদ বাহাদুর ও ইমরুল কায়েস চৌধুরীর নেতৃত্বে এক বিশাল শোক র‍্যালির কোটবাজারে প্রধান সড়ক গুলো প্রদক্ষিন করেন।

উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুজিবুল হক আজাদের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক ইমাম হোসেনের সঞ্চালনায় অনুষ্টিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সোহেল আহাম্মদ বাহাদুর, প্রধান বক্তা শাহিদুল হক সোহেল।

বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগ নেতা হুমায়ন কবির হিমু, বেন্টু দাশ,সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা মিজা ওবায়েদ রোমেল, যুবলীগ নেতা পৌরসভার কাউন্সিলর দিদারুল আলম রোবেল, জেলা যুবলীগ সদস্য ইসমাইল হোসেন সাজ্জাদ,জেলা যুবলীগের নেতা আহসান সুমন, রত্নাপালং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলমগীর, উপজেলা যুবলীগের সহ সভাপতি কফিল উদ্দিন, রতন কান্তি দে, সহ সভাপতি মোহাম্মদ শাহজাহান গাজী, সাংগঠনিক সসম্পাদক নুরুল আবচার চৌধুরী, উখিয়া উপজেলা যুবলীগ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বশির আহাম্মদ, উখিয়া উপজেলা যুবদলের সদস্য নুরুল আলম মাসুদ, রহমত উল্লাহ, রত্নাপালং ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মকছুদ চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ শাহাজান, রাজাপালং ইউনিয় যুবলীগের সাধারন সম্পাদক রাসেল উদ্দিন সুজন, হলদিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন আহাবায়ক মোজাম্মেল হক সিকদার, শাকু আলম সহ নেতৃবৃন্দরা।

উখিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক ইমরুল কায়েস চৌধুরী বলেন, অভিভাবক হীন এই উখিয়া উপজেলার হাজার হাজার বেকার যুবকদের চাকরি নিশ্চিত করতে হবে। আজ এনজিওরা কারো কথা শুনেনা। শুধু নেতৃত্বের অভাবে জেলার বাহিরের লোক এসে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করছে।

প্রধান বক্তা শহিদুল হক সোহেল বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে যারা ১৫ আগষ্ট সৃষ্টি করেছে, তাই শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে ২১ আগষ্ট সৃষ্টি করেছে। তারা বঙ্গুবন্ধুকে হত্যা করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন শেষ করতে পারেনি বলেই তারা ২১ আগষ্ট শেখ হাসিনাকে হত্যা করে দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ করতে চেয়েছিল। আমরা যুবলীগ সেটা কখনো হতে দিবনা।

প্রধান অতিথি সোহেল আহাম্মদ বাহাদুর বলেন, আমরা প্রধান মন্ত্রীর হাত কে শক্তি শালী করতে রাজনিতি করি। আমরা যুবলীগের কর্মরা বেচে থাকতে সকল সড়যন্ত্র মোকাবেলা করে দেশকে সামনে দিকে এগিয়ে নিতে শেখ হাসিনার ভেনগার্ড হিসেবে কাজ করে যাব।

তিনি আরো বলেন, এনজিওতে যারা যোগ্য তাদের চাকরির জন্য কাজ করে যাব। তবে অযোগ্যরা বাহুবল দেখালে ঠিক হবেনা। কারন যুবলীগ সৃংখল একটি সংগঠন আমরা শৃংখলা চাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here