Home কক্সবাজার চৌকিদার পদে নিয়োগ পেতে মরিয়া অস্ত্রমামলার আসামী সাইফুল ইসলাম

চৌকিদার পদে নিয়োগ পেতে মরিয়া অস্ত্রমামলার আসামী সাইফুল ইসলাম

140
0

নিজস্ব প্রতিবেদক:
কক্সবাজার সদর উপজেলার আওতাধীন ভারুয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের শূন্য পদে চৌকিদার নিয়োগে লাখ টাকার লেনদেনের অভিযোগ উঠেছে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে।

আর এ পদে নিয়োগ পেতে ইতিমধ্যেই দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছে অস্ত্র, অপহরণ ডাকাতিসহ বহু মামলার আসামী সাইফুল ইসলাম প্রকাশ মোঃ রাশেল নামের এক ব্যক্তি। যদিও বা স্থানীয়রা বলছে নিয়োগের আগেই সাইফুল ইসলাম মোঃ রাশেল প্রতিদিন পরিষদের কাজকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। তবে এখনো নিয়োগ হয়ছে কিনা জানেন না তারা। নিয়োগ পেতে চেয়ারম্যানসহ পরিষদ সংশ্লিষ্টদের মনে স্থান করে নিতে পরিষদের কাজকর্ম ও সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডে দায়িত্ব পালন করায় ভাবিয়ে তুলেছে সচেতন মহলকে।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে কয়েকজন ব্যক্তি জানান, সাইফুল ইসলাম প্রকাশ রাশেল শীর্ষ সন্ত্রাস, তার নামে অস্ত্র, ডাকাতি, অপহরণসহ একাধিক মামলা চলমান রয়েছে। অপহরণ পূর্বক মুক্তিপণ আদায়ের সময় আটকও হয়েছিল র‌্যাবের হাতে।

প্রাপ্ততথ্য ও খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়,ভারুয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চৌকিদার নুরুল আমিনকে দফাদার পদে পদোন্নতি দিয়ে শুন্য করা হয় চৌকিদার পদটি। এ পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ না করে গোপনে চেয়ারম্যানের পছন্দের লোক হিসেবে সাইফুল ইসলাম প্রকাশ মোঃ রাশেলকে চৌকিদার পদে নিয়োগ দিতে সুপারিশ করে আসছে চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুর রহমান।

চেয়ারম্যানের ইন্ধনে পরিষদে গিয়ে দৈনন্দিন কর্ম সম্পাদনাও করছে বহু মামলার আসামী এ রাশেল। সাইফুল ইসলাম প্রকাশ রাশেল একই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের নতুন পাড়া গ্রামের নুরুল আলমের ছেলে বলে জানা গেছে।

খোঁজ খবর ও অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, সাইফুল ইসলাম প্রকাশ মোঃ রাশেল এক যুগেরও বেশি সময় ধরে বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত রয়েছে, তার একটি সক্রিয় ডাকাত দল আছে এলাকায়।

তাদের মাধ্যমে পুরো ভারুয়াখালীতে ছিনতাই, ডাকাতি, অপহরণ, চিংড়ি ঘের ও লবণ মাঠ দখলসহ সরকারি জমি, প্যারাবন নিধন, গাছপালা উজাড় করা ছিল সাইফুল ইসলাম প্রকাশ রাশেল বাহিনীর মুল কাজ৷ সময়ের বিবর্তনে ২০০৮ সালের নির্বাচনে সরকার বদল হলে রাতারাতি আওয়ামিলীগ সমর্থক বনে গিয়ে ইউনিয়ন – উপজেলা নেতাদের আর্শিবাদ পেয়ে ভালো হয়ে যাওয়া বেশ ধরে পরিষদের সামনে একটি পানের দোকানে ব্যবসা শুরু করে। তাতেও ভাল না হয়ে চালিয়ে যায় নানা ধরনের অপরাধমুলক কর্মকান্ড। এর ধারাবাহিকতায় এক যুবককে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়ের সময় চৌফলদন্ডী থেকে র‌্যাবের হাতে আটক হয় ২০১৫ সালে৷ সে সময় সরকার সমর্থিত নেতাদের সুপারিশে পুলিশ ছেড়ে দিলেও পূনরায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে র‌্যাব। ঐ ঘটনায় দীর্ঘদিন কারাভোগের পর জামিনে এসে আবারো অপরাধে জড়িয়ে পড়ে৷

তার বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় বর্তমানে দু’টি মামলার হদিস পাওয়া গেছে। যার এফআইআর নম্বর ৭৮ তারিখ ২০ অক্টোবর ১৩ ইং যার জিআর নং ৭৯১/১৩। অপরটি এফআইআর নম্বর ৬০ তারিখ ২১ নভেম্বর ২০১২ ইং, জিআর নং ৮৭৬/১২। তাছাড়া আরো একাধিক মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

সম্প্রতি ভারুয়া খালী করির টেক এলাকায় এক ব্যবসায়ী সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় সাইফুল ইসলাম প্রকাশ রাশেলের সম্পৃক্ততা থাকলেও অদৃশ্য শক্তির ইশারায় মামলা থেকে বাদ পড়ে।

মাদকসহ হরেকরকম অপরাধে অভিযুক্ত এই সাইফুল ইসলাম প্রকাশ রাশেল পরিষদের চৌকিদার পদে নিয়োগ পেতে মরিয়া হয়ে উঠা এবং চেয়ারম্যানের আশপাশে থেকে দৈনন্দিন কার্যক্রম চালিয়ে যেতে দেখে সচেতন মহলের মাঝে চাপাক্ষোভ বিরাজের পাশাপাশি মিশ্রপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। দূর্দান্ত সন্ত্রাসী হওয়ায় এলাকার কেউ মুখ খোলার সাহস করে না। এমন সুযোগে পরিষদের চৌকিদার পদ ভাগিয়ে নিতে চেয়ারম্যানের সাথে দফারফা করেছে বলেও গুঞ্জন উঠেছে।

সচেতন মহলের দাবী সাইফুল ইসলাম মোঃ রাশেল নামের এই শীর্ষ সন্ত্রাস চৌকিদার পদে নিয়োগ পেলে এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি হবে৷ তারা স্বচ্ছ,কর্মৎ ব্যক্তিদের নিয়োগ দিতে সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

ভারুয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ নামের কাউকে চিনেন না বলে জানান। বিস্তারিত উপস্থাপন করার পর তিনি কিংকর্তব্যবিমূঢ হয়ে মোঃ রাশেলের বিষয়ে আরো বিস্তারিত জেনে পরে জানানো হবে বলে জানালেও এখনো কিছু বলেনি৷

অভিযুক্ত সাইফুল ইসলাম প্রকাশ রাশেলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তার বিরুদ্ধে কোন মামলা নেই বলে জানিয়ে বলেন, র‌্যাব সে সময়ে সন্দেহজনক আটক করছিল। নিয়োগের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন এবং আগামী ২/১ মাসের মধ্যে নিশ্চিত নিয়োগ পাবে বলে জানায় সাইফুল ইসলাম প্রকাশ রাশেল।

উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা মিল্টন রায় বলেন, বিতর্কিত এবং সমাজ ও রাষ্ট্র বিরোধী কোন ব্যক্তি চৌকিদার পদে নিয়োগ পাবে না। নিয়োগের আগে পুলিশ ভেরিফাই হবে বলে জানান তিনি।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here